২০২৩ সালে ৫ টি কম পুঁজির ব্যাবসার আইডিয়া | Low Investment Business Ideas 2023

1 Comment

Photo of author

By banglaportal.in

Low Investment Business Ideas 2023: নতুন বছর এলেই অনেকের ইচ্ছে থাকে নতুন ভাবে কোনো ব্যাবসা শুরু করার। কিন্তু বোঝে উঠতে পারছেন কোন ব্যাবসাটা শুরু করবেন। আপনার প্রথম প্রশ্ন এটাই আসবে – কোন ব্যাবসায় লাভ বেশি, কোন ব্যাবসায় লাভ কম। তো বন্ধুরা আপনাদের জন্য আজকে মোট ৫ টি কম পুঁজির ব্যাবসার আইডিয়া নিয়ে আলোচনা করবো।

Low Investment Business Ideas 2023

১) ফাস্ট ফুড সেন্টার :-

ফাস্ট ফুড সেন্টার অনেকেই ভাববেন এতো ছোট কাজ আমি করবো? দেখুন, কোনো কাজ ছোট নয়। মানুষ কে বেঁচে থাকার যেকোনো ভাবে রোজগার করতেই হবে। মাত্র ১২-১৫ হাজার টাকা বিনিয়োগ করেই আপনি এই ব্যাবসা খুব ভালো ভাবে শুরু করতে পারবেন। এই ব্যাবসায় বাজারে অনেক কম্পিটিশন, কিন্তু আপনি যদি ইউনিক কিছু খাবার মানুষ কে খাওয়াতে পারেন তাহলে আপনার ফাস্ট ফুড সেন্টার এর পরিচিত হতে বেশি সময় লাগবে না। ফাস্ট ফুড সেন্টার এর জন্য আপনার বিশাল কোনো জায়গা বা AC রুম এর ও প্রয়োজন নেই। একটা ছোট্ট জায়গার মধ্যেও এই ব্যাবসাটি শুরু করতে পারবেন।

২) নার্সারি ( গাছপালা যেমন – বিভিন্ন ফুলের গাছ, আম গাছ পেয়ারা, লিচু ইত্যাদি )

যদি আপনি গাছপালা যত্ন করতে ভালোবাসেন তাহলে এই ব্যাবসাটি আপনার জন্য অনেক ভালো হবে। এই ব্যাবসাতে হয়তো আপনি বেশি পুঁজি বিনিয়োগ করতে হবে না কিন্তু আপনাকে অবশ্যই গাছপালা কে নিজের শিশুর মতো যত্ন করে রাখতে হবে। আর এই নার্সারির ব্যাবসায় প্রতিযোগিতা অনেকটা কম। কিন্তু শহর অঞ্চলে এই ব্যাবসার অনেক চাহিদা। এই ব্যাবসা শুরু করার জন্য আপনি আপনার নিজের বাগান কেও কাজে লাগাতে পারবেন। এই ব্যাবসার জন্যও আপনাকে বিঘা বিঘা জমির দরকার হবে না।

৩) অনলাইন প্রোডাক্ট বিক্রি

আপনি বাজার থেকে পাইকারি দাম দিয়ে যেকোনো প্রোডাক্ট ক্রয় করুন। যেই প্রোডাক্ট নিয়ে আপনি ব্যাবসা করতে চান। এখানে অবশ্যই আপনাকে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকার মতো বিনিয়োগ করতে হবে। এখন অনলাইনে প্রোডাক্ট সেল করা অনেকটা সহজ হয়ে গেছে। আর এখন প্রায় মানুষ বাড়ি বসেই অনলাইন থেকে প্রয়োজনীয় যাবতীয় কিছু অর্ডার করেন। এই ব্যাবসার শুরু তে আপনার ইনকাম কম হলেও ধীরে ধীরে আপনি প্রোডাক্ট এর চাহিদা বেড়ে গেছে আপনার ব্যাবসা একটা পজিশনে দাঁড়িয়ে যাবে। এই ব্যাবসার জন্য অবশ্যই আপনাকে অনলাইনের বিভিন্ন বিষয়ের উপর জ্ঞান থাকতে হবে।

৪) বই বিক্রি :-

আপনি চাইলে এই বই বিক্রির ব্যাবসাটি অনলাইনেও করতে পারবে অথবা আপনি একটা ছোট্ট দোকান দিয়েও ব্যাবসাtটি শুরু করতে পারবেন। যদি আপনার গল্পের বই লেখার অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে খুবই ভালো। আপনি নিজের লেখা বই বিক্রি করেও ভালো টাকা ইনকাম করতে পারবেন। কোনো স্কুল, কলেজ কে টার্গেট করে যদি আপনি সেই স্কুল, কলেজ এর আশেপাশে একটা ছোট্ট দোকানও পেয়ে জান তাহলেও আপনি এই ব্যাবসা শুরু করতে পারবেন। আর এই ব্যাবসা খুব ভালোই চলবে। এখানে হয়তো আপনাকে ইনভেস্ট তুলনামূলক ভাবে একটু বেশি করতে হবে। কিন্তু আপনার ব্যাবসাটা রানিং চলতেই থাকবে।

৫) মোবাইল রিপাইরিং সেন্টার :

এই ব্যাবসাটি শুরু করার আগে আপনাকে অবশ্যই মোবাইল রিপাইরিং শিখে রাখতে হবে। আপনি এই হাতের কাজটা শিখতে পারলেই একটা ছোট্ট দোকান করেই আপনার ব্যাবসা শুরু করতে পারবেন। মোবাইল রিপায়রিং এর পাশাপাশি আপনি মোবাইল এর বিভিন্ন সরঞ্জাম রাখতে পারেন। ২০ হাজার টাকার মতো ইনভেস্ট করলেই এই ব্যাবসা শুরু করা যাবে। আর এই ব্যাবসাটিও আপনার রানিং চলতেই থাকবে। অনেক সময় দেখা যাই কোনো পার্স না লাগিয়েই আপনার অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে আপনি মোবাইল রিপাইরিং করে দিলেন এতে করে আপনার কোনো পুঁজি ব্যায় হলো না। দেরি না আজকেই এই ব্যাবসা শুরু করতে পারেন।

আরো পড়ুন: মাত্র কয়েক ঘন্টা কাজ করেই খুব ভালো ইনকাম

হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Here
টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Here

Leave a comment